ফতেহপুরে পূর্বশত্র“তার জেরে সংঘর্ষে একই পরিবারের ৫জন আহত, মামলা দায়ের

সুরমা ভিউ।।  গোয়াইনঘাট উপজেলায় ৬নং ফতেহপুর ইউনিয়নে রাতারগুল গ্রামে পূর্ব শত্র“তার জেরধরে বসতভিটায় হামলা চালিয়ে একই পরিবারের নারী পুরুষসহ ৭জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ২ জনকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে গোয়াইনঘাট থানা পুলিশ। এ ঘটনায় বাদি হয়ে ১৪ আগস্ট বুধবার গোয়াইনঘাট থানায় ৯জন ও অজ্ঞাতনামা ৭/৮ বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন খোরমান আলীর মেয়ে চম্পা বেগম (৩৫)। যার নং- ১৫।

মামলা সূত্রে জানা যায়, খোরমান আলীর বাড়ির পাশের একটি জায়গা দীর্ঘদিন থেকে ভোগ দখল করে আসছেন খোরমান আলীর পরিবার। এ জায়গা দখলে একই গ্রামের আলী আকবরের ছেলে জিয়াউল হক জিয়া, আরজমন আলীর ছেলে আজিম উদ্দিন, শাহাব উদ্দিন, রেহান মিয়া, নাজিম মিয়া, রাসেল মিয়া ও জুয়েল মিয়া, লিয়াকত আলীর ছেলে ইমরান মিয়া, ফখরুল ইসলামের ছেলে ইমন খোরমান আলীর বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় খোরমান আলীর বসতবাড়ির দরজা, জানালা, সকেছ, ফার্নিচার সহ প্রায় ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। হামলায় পরিবারের ৭জন সদস্যও আহত হন। আহত ৫জনকে বর্তমানে ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। এ ঘটনায় বাদি হয়ে গোয়াইনঘাট থানায় ৯জন ও অজ্ঞাতনামা ৭/৮ বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন খোরমান আলীর মেয়ে চম্পা বেগম।
এ ব্যাপারে মামলার বাদী চম্পা বেগম জানান, জোরপূর্বক জায়গাটি দখলের উদ্দেশ্য পরিকল্পতিভাবে অস্ত্রসস্ত্র সজ্জিত হয়ে আমাদের বাড়ি ও পরিবারের লোকজনদের উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায় উক্ত আসামীরা। আহত অবস্থায় পরিবারের ২জন সদস্যকে বিনা কারনে আটক করে পুলিশ। আমাদের ৭জনকে আসামী করে থানায় মামলা করে হামলাকারীরা। চম্পা বেগম জানান, আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় আমরা আতঙ্কে জীবন-যাপন করছি। আমরা বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রশাসনের উর্ধ্বতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।