যেভাবে বুঝবেন আপনি অপুষ্টিতে ভুগছেন

আমরা অনেক সময় নিজেদের শরীরের অনেক ব্যাপার খেয়াল করি না। বড় রোগ বা জটিলতায় আক্রান্ত হওয়ার পূর্বে শারীরিক নানা পরিবর্তন ঘটে। শুধু একটু সচেতন এবং নিজের প্রতি যত্নশীল হলে, অনেক অঘটন ঘটা থেকে বাঁচা সম্ভব।

আমাদের অসুস্থ হওয়ার মূল কারণ হল- শরীরে সঠিক পরিমাণে পুষ্টির অভাব। আর, এই পুষ্টির অভাব বা ঘাটতি হয় মূলত সঠিক খাদ্যাভ্যাস না থাকলে।

খাদ্যে যখন জরুরি পুষ্টি উপাদান বাদ পড়ে তখন তার অভাবজনিত লক্ষণগুলো ধীরে ধীরে প্রকাশ পেতে থাকে। তাই, আপনার শরীরের যেকোনো সমস্যা বা পরিবর্তনকে আমলে নিন।

মূলত, দেহে সঠিক পরিমাণে পুষ্টির অভাব হলে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। আপনি যদি প্রায়ই অসুখে ভোগেন অর্থাৎ আজ এই অসুখ কাল সেই অসুখে, তবে বুঝতে হবে আপনার দেহে প্রোটিন, জিংক, ভিটামিন-এ এবং ভিটামিন-ই সহ অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

নিচের লক্ষণ বা সাইনগুলো দেখে নিন আপনি কোনো অপুষ্টিতে ভুগছেন না তো?

চোখ দেখে অপুষ্টির ধারণা

যদি চোখের নিচে ফোলা ভাব বা ডার্ক সার্কেল থাকে, তবে বুঝতে হবে আপনি ফুড টলারেন্স, ডিহাইড্রেশন এবং অ্যালার্জির সমস্যায় ভুগছেন।

* রাতে দেখতে সমস্যা হলে আপনি ভিটামিন-এ এর অভাবজনিত সমস্যায় ভুগছেন।

* চোখের ভেতরে যদি রাপচার্ড ব্লাড ভেসেল দৃশ্যমান হয় তবে আপনি ভিটামিন-সি এর অভাবজনিত সমস্যায় ভুগছেন।

* চোখের নিচের পাতা যদি হলুদ বর্ণের হয় তবে আপনার দেহে আয়রনের অভাব রয়েছে।
দাঁতের অবস্থা দেখে অপুষ্টির ধারণা 

*আপনার মাড়িতে যদি কোনো কারণ ছাড়া ঘন ঘন ব্লিডিং হয় তবে আপনার দেহে ভিটামিন-সি এবং ফোলিক এসিডের ঘাটতি রয়েছে।

* আপনার দাঁতের অবস্থা যদি এমন হয় যেন ঘনবসতি পূর্ণ এলাকা। অর্থাৎ, দাঁতের অবস্থা এমন যে একে অন্যের সঙ্গে চাপাচাপি করে আছে তবে আপনি নিশ্চিতভাবে ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন-কে এর অভাবে ভুগছেন।

চুলের অবস্থা দেখে

* আপনি সবচেয়ে দামি ব্র্যান্ডের শ্যাম্পু ব্যবহার করার পরও যদি চুলের নানা সমস্যায় ভুগে থাকেন, তবে বুঝতে হবে আসলে গোড়ায় গলদ। অর্থাৎ, চুলের জন্য জরুরি পুষ্টির অভাবে ভুগছেন আপনি।

* যদি আপনার অস্বাভাবিক হেয়ার ফল হয়, তবে আপনি ভিটামিন-বি-২, বি-৫, বি-৭ জিংকের ডেফিসিয়েন্সিতে ভুগছেন। তবে, দিনে ১০০টি পর্যন্ত চুল পড়াকে স্বাভাবিক হিসেবে ধরা হয়। অনেক সময়, যাদের এনিমিয়া, পিসিওএস বা হাইপো-থাইরয়েডিজমের সমস্যা থাকে তাদেরও প্রচুর হেয়ার ফল হয়।

* চুলের পর্যাপ্ত যত্ন নেয়ার পরও যদি চুল শুষ্ক এবং নিষ্প্রাণ থাকে তবে আপনার দেহে ভিটামিন-এ, ভিটামিন-ই, ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড, প্রোটিন, আয়োডিন, সেলেনিয়াম এবং বায়োটিনের অভাব রয়েছে।

* যদি নিয়মিত চুল পরিষ্কার করার পরও আপনার চুলে খুশকির আক্রমণ হয়, তবে আপনি সেলেনিয়াম, ওমেগা-৩ ফ্যাটি এবং ভিটামিন-এ এর অভাবে ভুগছেন।

নখ দেখে অপুষ্টির ধারণা

* যদি আপনার নখ চামচ আকৃতির হয় তবে, আপনার শরীরে ভিটামিন বি-১২ এবং আয়রনের অভাব রয়েছে।

* নখের উপরে যদি ছোট ছোট সাদা ফোটা থাকে যাকে ইংরেজিতে মিল্ক স্পট বলে, তবে আপনার রান্না সুন্দর এমন মিথে কান দেবেন না। মূলত আপনি ক্যালসিয়াম ও জিংকের অভাবে ভুগছেন।

* নখের রঙ যদি হলদে কালারের হয়, তবে আয়রন এবং বায়োটিনের ঘাটতি রয়েছে আপনার শরীরে।

* যাদের নখ খুব নরম, সহজে ভেঙে যায় তারা ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, আয়োডিনের অভাবে ভুগছেন।

মাসেল এবং জয়েন্ট এর অবস্থা দেখে অপুষ্টির ধারণা

* অনেকে প্রায়ই মাসেল ক্রাম্পিং এর সমস্যায় ভুগে থাকেন। যা মূলত, ভিটামিন-বি১, বি২, বি৬ এবং পটাশিয়ামের অভাবে হয়ে থাকে।

* যদি ইডিমা বা পা ফুলে যাওয়ার সমস্যা হয় তবে বুঝতে হবে আপনার শরীরে ভিটামিন বি১, বি৬ এবং পটাশিয়ামের ঘাটতি রয়েছে।

এছাড়া, যাদের হাড়ের নানা সমস্যা রয়েছে তারা ভিটামিন-ডি, ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাসের অভাবজনিত সমস্যায় ভুগছেন।
মানসিক পরিবর্তন বলে দেবে আপনার কোন পুষ্টির দরকার

যারা প্রায়ই হতাশায় ভুগে থাকেন তারা ভিটামিন-বি১, বি৫, বায়োটিন এবং পিএবিএ বা প্যারা-আমিনো-বেনজয়িক এসিডের অভাবে ভুগছেন। যারা, সব জায়গায় খুব নার্ভাস থাকেন তারা ভিটামিন-বি১, বি৫ এবং ভিটামিন বি-৬ এর অভাবে ভুগছেন।

এছাড়া, ডিমেনশা, ঘুমের সমস্যা এবং ডিজিনেস এর সমস্যা হয় মূলত বি-ভিটামিনের অভাবে।

অন্যান্য যে লক্ষণ দেখে বুঝবেন আপনি অপুষ্টিতে আক্রান্ত 

* খেয়াল করলে দেখা যাবে, অনেকেরই হাতের তালু অনেক ঠাণ্ডা থাকে তারা মূলত ম্যাগনেশিয়ামের অভাবে ভুগছেন।

* কারণ ছাড়া নাক দিয়ে রক্ত পড়া মানে হল ভিটামিন-সি এর অভাব। এছাড়া, উচ্চ রক্তচাপের ফলেও অনেক সময় নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।

* কোনো কারণ ছাড়া যদি শরীরে কালশিটে দাগ পড়ে অর্থাৎ কোথাও পড়লেন না বা আঘাত পেলেন না অথচ শরীরে যদি কালশিটে দাগ পড়ে, তবে বুঝতে হবে আপনি সুস্পষ্টভাবে প্রোটিন, ভিটামিন-সি এবং ভিটামিন-কে এর অভাবজনিত সমস্যায় ভুগছেন।

আজ ভিটামিনের অভাবজনিত লক্ষণগুলো আলোচনা করা হল। আগামীর কোনো এক পর্বে জানিয়ে দেব, আমাদের শরীরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভিটামিন এবং মিনারেলসগুলো পাওয়া যাবে কোন কোন খাবার থেকে।

লেখক : পুষ্টিবিদ, বেক্সিমকো ফার্মা লিমিটেড।