পুরুষদের বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করছে নারীরা: হিরো আলম

নারী নির্যাতন আইনের অপব্যবহার ও সংশোধনে মানববন্ধন করেছেন হিরো আলম।

আজ শনিবার (২৪ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘পরিবারে পুরুষের ভূমিকা কম নয়, তবু পুরুষ কেন অবহেলিত’ শীর্ষক ব্যানারে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ মেন’স রাইটস ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এ মানববন্ধনে অংশ নেন তিনি।

এ সময় হিরো আলম বলেন, ‘পুরুষ নির্যাতনের একটি শক্ত আইন চাই। ঘরে ঘরে পুরুষেরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। নারী নির্যাতন আইনের অপব্যবহার করে পুরুষদের নানাভাবে নির্যাতন করছে নারীরা। পুরুষ অধিকার ফাউন্ডেশনের ব্যানারে আমি এসেছি পুরুষদের দাবি নিয়ে রাজপথে।’

হিরো আলম আরও বলেন, ‘নারী নির্যাতনের অধিকাংশ মামলাই মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে করা হয়। আমি মনে করি, মামলাগুলো পুরুষদের হয়রানি করার জন্যই করা। এই আইনের অপব্যবহার বন্ধ ও সংশোধনের দাবিতেই আজ আমরা মাঠে নেমেছি।’

সংগঠনের মহাসচিব প্রকৌশলী ফারুক শাজেদ বলেন, বাংলাদেশ মেন’স রাইটস ফাউন্ডেশনের ২১ দফা দাবীর ২য় ও অন্যতম দাবী হলো নারী নির্যাতন আইনের সংশোধন। কারণ এ আইনের অপব্যবহারের দ্বারা নিরীহ পুরুষ ও তার পরিবারের লোকদেরকে নির্যাতন ও হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে।’

ফারুক শাজেদ আরও বলেন, ‘নারী নির্যাতন মামলা মিথ্যা প্রমাণিত হলে আইন অনুযায়ী মামলা করতে গেলে আদালতের অনুমতি লাগে। তাই ভুক্তভোগীরা হয়রানীর ভয়ে বাদীর বিরুদ্ধে মামলা করতে চান না। তাই ভূক্তভোগীর আবেদন ব্যতিত যা ১৭(২) ধারা মোতাবেক লিখিত হওয়া বাঞ্ছনীয়, তা উঠিয়ে দিয়ে বিচারক রায়ে মিথ্যা মামলাকারীকে চিহ্ণিত করে তার বিরুদ্ধে আইনের প্রয়োগ করা গেলে মিথ্যা মামলা নিঃসন্দেহে কমে যাবে।’

কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান শেখ খাইরুল আলমের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন- তাইফুর রহমান (আহ্বায়ক), আল-আমিন (যুগ্ম আহ্বায়ক), আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম (যুগ্ম আহ্বায়ক), ডা. মহিউদ্দিন খোকন, কণ্ঠশিল্পী নজরুল ইসলাম দয়া, লিটন গাজী, সদস্য সচিব মাজেদ ইবনে আজাদ, লিটন গাজী, মাজেদ ইবনে আজাদ, কেন্দীয় কমিটির সদস্য মো. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, এবছর মার্চে স্ত্রীকে পেটানোর অভিযোগ ওঠে হিরো আলমের বিরুদ্ধে। সেসময় তার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় বিয়ে ছাড়াও শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন স্ত্রী সাদিয়া বেগম সুমির বাবা সাইফুল ইসলাম। এ কারণে তাকে বেশ কিছুদিন জেলেও থাকতে হয়েছে।