মসজিদের মুয়াজ্জিনের কক্ষে থেকে ৩ শিশুর লাশ উদ্ধার

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার পূর্ব কলাদি জামে মসজিদ লাগোয়া মুয়াজ্জিনের বিশ্রামঘর থেকে তিন শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে এ ঘটনার খবর জানা যায়।

নিহত শিশুরা হচ্ছে- রিফাত (১০), আব্দুল্লাহ আল নোমান (৮) ও ইব্রাহিম (৯)। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার আইচ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিহতরা সেখানেই থাকতো। এদের মধ্যে ওই মসজিদের মুয়াজ্জিনের ছেলে রিফাতও রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিশু আব্দুল্লাহ আল নোমানকে নিয়ে মসজিদ সংলগ্ন রুমে থাকতেন মুয়াজ্জিন মাওলানা জামাল উদ্দিন। তার বাড়ি বরগুনায়। শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে ছেলে নোমানকে কক্ষে রেখেই মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে যান জামাল উদ্দিন। যাওয়ার সময় দুই কিশোর ইব্রাহিম ও রিফাত হোসেনকে রুমে ঢুকতে দেখেন। ইব্রাহিম ও রিফাত পার্শ্ববর্তী মতলব দক্ষিণের ভাঙ্গারপাড় মাদ্রাসায় পড়ে।

নামাজ শেষে ইমাম তার কক্ষটি ভেতর থেকে আটকানো দেখতে পান। অনেক ডাকাডাকির পর দরজা না খোলায় সেটি ভেঙে উপস্থিত মুসল্লিরা দেখেন রুমের মধ্যে তিন শিশু-কিশোর অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে। এদের দুজন মৃত। আর একজনকে মতলব হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকেও মৃত ঘোষণা করেন।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে। তদন্তের পর তিনজনের মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।