ছাতকে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইন্যাল সম্পন্ন

ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব ১৭ অনুর্ধ জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইন্যালে দোলারবাজার ইউনিয়ন পরিষদ একাদশ বিজয়ী হয়েছে। আজ রোববার বিকেলে শহরের নির্মাণাধিন শেখ রাসেল মিনি ষ্টেডিয়ামে (মন্টু বাবুর মাঠ) অনুষ্ঠিত ফাইন্যাল খেলায় উত্তর খুরমা ইউনিয়ন পরিষদ একাদশকে ২-০ গোলে পরাজিত করে দোলারবাজার ইউনিয়ন পরিষদ একাদশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। রোববার সকালে টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইন্যালে স্ব-স্ব খেলা বিজয়ী হয় ইসলামপুর, উত্তর খুরমা, দোরারবাজার ও ছৈলা-আফজলাবাদ ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ। সেমি ফাইন্যালে ছৈলা-আফজলাবাদকে হারিয়ে দোরারবাজার ও ইসলামপুরকে হারিয়ে উত্তর খুরমা ইউনিয়ন পরিষদ একাদশ বিজয়ী হয়। বিকেলে ফাইন্যালে মুখোমুখি হয় উত্তর খুরমা ও দোলারবাজার ইউনিয়ন পরিষদ একাদশ। ফাইন্যাল খেলায় ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয় দোলারবাজার ইউনিয়ন পরিষদ একাদশের খেলোয়াড় আবু ছালেক রুবেল ও ম্যান অব দ্যা টুর্ণাপমেণ্ট নির্বাচিত হয় উত্তর খুরমা ইউনিয়ন পরিষদ একাদশের খোলোয়াড় হাবিবুর রহমান। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলিাম কবিরের সভাপতিত্বে ও ইউআরসি ইন্সট্রাকটর মোস্তফা আহসান হাবিবের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান। এসময় সহকারী কমিশনার (ভুমি) তাপস শীল, এএসপি সার্কেল বিল্লাল হোসেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত লাহিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম, এএসপি সার্কেল বিল্লাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক সৈয়দ আহমদ, ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেন, বিল্লাল আহমদ, ক্রিড়া সংস্থার সেক্রেটারী লাল মিয়া, অর্থ সম্পাদক আজিজুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা মোশাইদ আলী, আফতাব উদ্দিন, সামছু মিয়া, আব্দুল আওয়াল, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মঞ্জুর আলম, সিলেট জেলা ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল করিম নেওয়াজ সহ ক্রিড়ামোদি লোকজন উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে বিজয়ী ও রানার্স আপ দলের হাতে ট্রপি তুলে দেন প্রধান অতিথি মুহবুর রহমান মানিক এমপিসহ অতিথিবৃন্দ। শনিবার সকালে টুর্ণামেণ্টর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন, সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম। টুর্ণামেণ্টের সবকটি খেলায় রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন সৈয়দ আহমদ লেচু। সহকারী রেফারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মাসুক আহমদ ও জুমলাত চৌধুরী। ধারা বর্ননায় ছিলেন ইউআরসি ইন্সট্রাকটর মোস্তফা আহসান হাবিব ও সেলিম মাহবুব।