দোয়ারাবাজার থেকে নিখোঁজ যুবকের লাশ মিললো ভারতে

এনামুল কবির(মুন্না)দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সীমান্তে এক যুবক নিহত হয়েছে। বুধবার (২ অক্টোবর) সন্ধ্যা থেকে ওই যুবক নিখোঁজ ছিলেন। নিহত যুবকের নাম কামরুল ইসলাম (২২)। সে উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের রঘারপাড় (বন্ধুয়াবাড়ি) গ্রামের আশক আলীর পুত্র।

শুক্রবার বিকালে ৪৮ বিজিবি সিলেট ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর শাকিব জানান, খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ সদস্যরা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সীমান্তের ২ কি.মি. ভারত অভ্যন্তরে মেঘালয় রাজ্যের পাথরঘাটা এলাকা থেকে নিহত কামরুলের লাশ উদ্ধার করে সেখানকার পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি শিলং সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

স্থানীয় সোনালী চেলা সীমান্ত ফাঁড়িতে পাঠানো নিহতের ছবি দেখে মরদেহটি কামরুলের বলে তার স্বজনরা সনাক্ত করেন। লাশ হস্তান্তরে বিলম্বের কারণ সম্পর্কে মেজর শাকিব বলেন, ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হলে বিএসএফ ও বিজিবি‘র পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে সোনালী চেলা সীমান্ত ফাঁড়িতে নিহতের পরিবারের কাছে লাশ হস্থান্তর করা হবে। এ ছাড়া সুরতহাল রিপোর্টে আঘাতের কোনো চিহ্ন দৃশ্যমান না হলেও ময়না তদন্তে সঠিক আলামত পাওয়া যাবে বলে তিনি জানান।

অপরদিকে নিহতের কারণ সম্পর্কেও সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে নিহত কামরুলের পিতা আশক আলীর বরাত দিয়ে দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাশেম বলেন, বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত কামরুলকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলনা, তখন তার ব্যবহৃত মুঠোফোনটিও বন্ধ ছিল।

একই কথা জানান, নিহতের চাচাতো ভাই একই গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল কাইয়ুম (ফারুক)।