দিরাই আ.লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি তৃণমূলে স্বস্তি: অপপ্রচারের নিন্দা 

সালমান মিয়া, দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি।।  দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের আগামী ২৪ নভেম্বর সম্মেলন কে কেন্দ্র করে দলের ত্যাগী ও গ্রহন যোগ্য নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করায় তৃণমূল নেতাকর্মীরা স্বস্তি ফিরে পেয়েছেন এবং দলের সর্বস্তরের নেতা কর্মীদের মাঝে সম্মেলন কে সামনে রেখে তাদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। দলীয় সুত্রে জানা যায় গত মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে  সম্মেলন প্রস্তুতি গঠনের লক্ষ্যে দলের সভাপতি আছাব উদ্দিন সরদারের সভাপতিেত্ব অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তা। সভায় সর্বসম্বতিক্রমে আছাব উদ্দিন সরদার আহবায়ক ও প্রদীপ রায় কে সদস্য সচিব করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয় । আওয়ামী লীগের বিভিন্ন শ্রেণীর নেতাকর্মীরা বলেন আমাদের নেত্রী জয়া সেনগুপ্তার নেতৃত্বে আমরা যখন ঐক্য বদ্ধ এবং দলের সকল  ত্যাগীরা নেতা কর্মীরা একটি সফল সম্মেলন নিয়ে ব্যস্ত ঠিক সে সময়ে আওয়ামীলীগ নামধারীরা নিজ স্বার্থ হাসিলে ব্যর্থ হয়ে দলে কোন্দল সৃষ্টির পায়তারায় লিপ্ত,যারা সারাজীবন সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বিরোধীতা ও তাঁর মৃত্যুর পর গত জাতীয় নির্বাচনের আগে বিএনপিতে যোগদান করেন তারা এখন আওয়ামী লীগের জন্য মায়া কাঁন্না দেখান, যারা আজীবন সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বিরোধীতা করছেন তাদের ষড়যন্ত্র কখনো সফল হবেনা। এ ব্যাপারে দলটির সভাপতি আছাব উদ্দিন সরদার বলেন আমাদের নেত্রী মাননীয় সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তার উপস্থিতিতে সকল নেতা কর্মীর সর্বসম্মতিতে দলের ত্যাগী ও গ্রহনযোগ্যদের নিয়ে  ২১ সদস্যের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে, ওই কমিটি  দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আগামী সম্মেলন করবে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট অভিরাম তালুকদার বলেন, আমাদের নেত্রী মাননীয় সংসদ সদস্য জয়া সেনগুপ্তার পরামর্শে দলের সকল নেতা কর্মীর মতামতের ভিত্তিতে একটি গ্রহণযোগ্য কমিটি গঠন হওয়ার দলের তৃণমূল নেতাকর্মীরা খুবই আনন্দিত, তাদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে, সবাই একটি গ্রহনযোগ্য কমিটি আশা করেন, এক প্রশ্নের জবাবে অভিরাম তালুকদার বলেন,দিরাই উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান  হাফিজুর রহমান তালুকদার আওয়ামী পরিবারের সন্তান, একজন সফল শিক্ষক ও সজ্জন রাজনীতিবিদ হিসেবে সবার কাছে পরিচিত, তিনি সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের নেতৃত্বে দ্বিধাবিভক্ত আওয়ামী লীগ কে ঐক্যবদ্ধ করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন, মান অভিমানে দল থেকে চলে গেলে ও প্রয়াত  জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত তাঁকে স্বসম্মানে দলে ফিরিয়ে আনেন, সুতরাং সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের অনুসারী নিবেদিত প্রাণ পরিচ্ছন্ন রাজনীতি বিদ হাফিজুর রহমান তালুকদার ও দিরাই বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্নেহধন্য মতিউর রহমান মতি মিয়া কে নিয়ে অপপ্রচার হাস্যকর। দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নেজামত মিয়ার পরিবারের সন্তান মতিউর রহমান মতি মিয়া কে নিয়ে অপপ্রচারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। দিরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ মিয়া বলেন আসন্ন উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন কে সামনে রেখে আমাদের নেত্রী মাননীয় সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তার উপস্থিতিতে কার্যকরী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ২১ সদস্য বিশিষ্ট সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করে জেলায় পাঠানো হয়েছে, এনিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর কোন সুযোগ নেই, যারা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের নেতৃত্বে রাজনীতি করেছেন এবং সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত যাদের কে দলে এনেছেন তাদের কে নিয়েই কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জয়া সেনগুপ্তা বলেন আমি নিজে উপস্থিত থেকে কার্যকরী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ২১ সদস্যের একটি সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করে অনুমোদনের জন্য জেলায় পাঠানো হয়েছে, কমিটি অনুমোদন হওয়ার আগে কোন প্রকার মন্তব্য করা যাবে না।