সিলেটে সম্প্রীতি বাংলাদেশের উদ্যোগে সম্প্রীতি সংলাপ অনুষ্ঠিত

সুরমা ভিউ।।  সিলেটে সম্প্রীতি বাংলাদেশের উদ্যোগে সম্প্রীতি সংলাপ শুক্রবার (২২ নভেম্বর) বিকাল ৩টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

সিলেট জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটর সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযুষ বন্দোপাধ্যায়।
এসময় তিনি বলেন, সব ধর্মে শান্তি ও সম্প্রীতিকে সমানভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ শান্তি ও সম্প্রীতির দেশ। এখানে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষ এক অভূতপূর্ব মেলবন্ধনে সহাবস্থান করছে। স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে অসাম্প্রদায়িক দেশের কথা উল্লেখ রয়েছে। পরমতের প্রতি শ্রদ্ধা গণতন্ত্রের পূর্ব শর্ত। তিনি বলেন, ধর্ম যার যার, উৎসব সবার- এই মন্ত্রে দীক্ষিত হয়ে বাংলাদেশের জনগণ সব ধর্মীয় উৎসব, সার্বজনীন বাংলা নববর্ষ, পহেলা বৈশাখ এবং জাতীয় উৎসবসমূহ আড়ম্বরভাবে উদযাপন করে থাকে। এ সময় তিনি প্রীতি ও সহমর্মিতার বন্ধন অটুট রেখে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে সকলকে এক সাথে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আর্থ-সামাজিক সব ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন হয়েছে। দারিদ্রতা হ্রাসে এ সরকারের গণমুখী পদক্ষেপের সুফল ভোগ করছে জনগণ। এ ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশের পর্যায়ে প্রবেশ করেছে।
এছাড়াও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগরের সভাপতি সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সম্প্রীতি বাংলাদেশের সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব, সিলেট জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেবজিৎ সিংহ, সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, জাতীয় ইমাম সমিতি সিলেট জেলা শাখার সভাপতি মোহাম্মদ এহসান উদ্দিন, রামকৃষ্ণ মিশন সিলেটের অধ্যক্ষ স্বামী চন্দ্রনাথানন্দজি মহারাজ, সিলেট প্রেসবিটেরিনারী চার্চ ফাদার ডিকন নিঝুমসাংমা, সিলেট বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ সংঘানন্দ থের প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, আইনজীবী সহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন গীতবিতান বাংলাদেশ এর পরিচালক অনিমেষ বিজয় চৌধুরী সহ শিক্ষার্থীরা।