ছাতকে ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্টান বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ

ছাতক প্রতিনিধি।।  ছাতকে গোবিন্দগঞ্জ ইসলামী সমাজ কল্যান পরিষদের উদ্দ্যোগে মনোজ্ঞ ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্টান ও আলোচনা সভা অবশেষে পুলিশ বন্ধ করে দিয়েছে। গত শুত্রবার সন্ধ্যায় গোবিন্দগঞ্জ ট্রাফিক পয়েন্ট সংলগ্ন বালু মাঠে অনুষ্টিত হামদে বারী তা’লা নাতে রাসুল (সঃ) মনোমুগগ্ধকর প্রদর্শনী চলাকালীন অবস্থায় বন্ধ করে দেয়ার এ ঘটনা ঘটে। হাজারো শ্রেুাতাদের উপস্থিতিতে ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্টানে কাযত্রুম স্থগিত ঘোষনা করেন মাওলানা আব্দুস সালাম আল-মাদানী। ইসলামী সাংস্কতিক অনুষ্টান বন্ধ করার ঘটনায় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আয়োজনকারিরা জানান উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করে ও লিখিত আবেদন করে ও ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্টান করতে পারেনি গোবিন্দগঞ্জ ইসলামী সমাজ কল্যান পরিষদ। এ অনুষ্টানে অতিথি আ’লীগ,জাপার,সমাজসেবক,আইনজীবি, সাংবাদিকসহ এলাকার গন্যমান্যবক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এ অনুষ্টানে ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্টানে সিলেট সুনামগঞ্জ ঢাকা থেকে খ্যাতিমান গীতিকার সুরকার ও শিশুশিল্পীরা আগমন ঘটেছিল।তাদের এক নজরে দেখতে জনতার গনজোয়ার নেমে আসার আগে পুলিশের বাঁধায় অনুষ্টান করতে পারেনি আয়োজনকারীরা। এলাকাবাসী গন্যমান্যব্যক্তিরা পুলিশকে অনুরোধ করে ইসলামী সাংস্কৃতিক রাত ১০টা পর্যন্ত বিনা ব্যানারের চলার অনুরোধ করে ও এর সুরাহা পায়নি। অবশেষে এলাকাবাসির অনুরোধ না মেনে পুলিশের বাঁধা মধ্যে ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্টান বন্ধ করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে প্রধান অতিথি গীতিকার সুরকার ও কন্ঠ শিল্পী মশিউর রহমান সুরমাভিউ কে বলেন সিলেটে এ ধরনের অনুষ্ঠান বন্ধ করায় আমি হতবাক হয়েছি।এধরণের সুস্থ সাংস্কৃতির অনুষ্ঠানে বাধা দেয়া মানে দেশদ্রোহিতার সমান। একটি সুস্থ সাংস্কৃতি কখনো দেশ বিরোধী হয় না তারা সব সময় দেশের কথা বলে,আল্লাহর কথা বলে,মানুষের কথা বলে। আজ যারা আমরা মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলি তারা কখনো এ ধরনের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিতে পারে না। কারন এ ধরনের অনুষ্ঠান কখনো মাদকের পক্ষে কথা বলে না।সবসময় মাদকের বিপক্ষে কথা বলে।

সমাজ সেবক উবায়দুল হক শাহীন বলেন এই অনুষ্ঠান উপভোগ করার জন্য শুধু ছাতকের মানুষ নয় বিভাগের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজারো মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন। আজকের এই অনুষ্ঠান টি বন্ধ করে দিয়ে এলাকার যে সুন্দর পরিবেশ ছিল তা নষ্ট করে দেয়া হয়েছে। আমি ভবিষ্যতে এ ধরনের অনুষ্ঠানে প্রশাসন সর্বাত্তক সহযোগিতা করবে বলে মনে করি।