জেলা পরিষদ নির্বাচন সামনে রেখে সুনামগঞ্জে আওয়ামীলীগ দুই টুকরা

একে কুদরত পাশা, সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃঃ জেলা পরিষদ নির্বাচনে দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করায় সুনাগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের চার প্রার্থী ভোটযুদ্ধে মুখোমূখি হচ্ছে আগামী ২৮ ডিসেম্বর। এখানে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এনামুল কবির ইমনকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হলেও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা মুকুট, আওয়ামীলীগনেত্রী সঞ্চিতা চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা আবাব চৌধুরী।

জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনকে ঘিরে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগে বিভক্তি দেখা দেয়। সাবেক সামাদ গ্রুপের নেতৃত্বদেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মতিউর রহমান ও সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুলহুদা মুকুট অপর দিকে সুরঞ্জিত গ্রুপের নেতৃত্ব দেন সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিস্টার এনামুল কবির ইমন। ইমনের সাথে যোগদেন সুনামগঞ্জের নির্বাচনী এলাকার চরা এমপি। শেষে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদব সৈয়দ আশরাফ সুনামগঞ্জ এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে সাবেক এমপি মতিউর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা পরিষদেও প্রশাসক এনামুল কবির ইমনের নাম ঘোষণা করেন। সাধারণ নেতাকমীরা মনে করেছিলো দুপক্ষর দুজন পদে থাকায় হয়ত জেলা আওয়ামীলীগ এক হয়ে যাবে। কিন্তু জেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামীলীগ আবারো দুটুকরা হলো। জেলা সভাপতি দলীয় মনোনীত প্রার্থীও পক্ষে না গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীও পক্ষনেন। সাথে সাথে জেলা থেকে গ্রামপর্যন্ত নেতাকর্মীরা দুভাগ হয়ে নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করেন।

সাড়া দেশে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীদের জয়লাভের সম্ভাবনা থাকলেও সুনামগঞ্জে এর ব্যতিক্রম হতে পারে। ব্যারিস্টার এনামুল কবির ইমন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হলেও এখনো তৃণমূল আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের কাছে মুকুট অধিত পরিচিত ও জনপ্রিয়। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিষ্টার ইমনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে। জেলা পরিষদ নির্বাচনে এর প্রভাব পড়তে পারে মলে মনে করছেন অনেকে।

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মতিউর রহমান সহ বিশাল একটি অংশ বিদ্রোহী প্রার্থী নুরুল হুদা মুকুটের পক্ষে প্রকাশ্যে অবস্থান নেওয়ায় ভোটের হিসাব অনেকটা বদলেগেছে। অপর দিকে বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় জয়ের ব্যাপারে বিএনপির ভোট প্যাক্টর বলে মনে করছেন প্রার্থীরা। ইতোমধ্যে জেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে ধানেরর্শীষ প্রতীকে বিজয়ী চেয়ারম্যনার আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুকুটের সাথে দিনরাত নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সব মিলিয়ে সুষ্ট নির্বাচন হলে সুনামগঞ্জে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর ভরাডুবি হবে বলেইন এখন পর্যন্ত মনে হচ্ছে।

You May Also Like