ভুলেও পান করবেন না বেড টি!

গবেষণা বলছে, ঘুম ভাঙা মাত্র চা পান শরীর এবং দাঁতের মারাত্মক ক্ষতি হয়। শুধু তাই নয়, সারা রাত ধরে দাঁতের ফাঁকে ফাঁকে জমে থাকা ময়লা এবং ব্যাকটেরিয়া চায়ের সাথে পেটে চলে যায়। ফলে নানাবিধ জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। সেই কারণেই মুখ না ধুয়ে কিছু খেতে বারণ করেন চিকিৎসকেরা। আর যদি এই নিয়মটি না মানেন, তাহলে হতে পারে কিছু ভয়ংকর বিপদ।

এক্ষেত্রে যে যে সমস্যা গুলো হওয়ার আশঙ্কা থাকেঃ-

১। অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়ঃ রাতের বেলা ঘুমিয়ে পরার পর থেকেই হাজারো ব্যাকটেরিয়া মুখ গহ্বরে জমতে শুরু করে। এখন দাঁত না মেজেই যদি চা বা কফি পান করা হয়, তাহলে এই সব ব্যাকটেরিয়া খাদ্য নালি হয়ে এসে পৌঁছায় স্টমাকে। ফলে সেখানে অ্যাসিডের মাত্রা এতটাই বেড়ে যায় যা নানাবিধ সমস্যা দেখা যায়। তাই যারা গ্যাস-অম্বল বা বদ হজমের সমস্যায় ভোগেন, তারা ভুলেও দাঁত ব্রাশ না করে চা বা কফি খাবেন না।

২। হজম ক্ষমতা কমে যায়ঃ খারাপ ব্যাকটেরিয়ার দাপটে স্টমাকে উপস্থিত ভাল ব্যাকটেরিয়ারদের সংখ্যা কমে যেতে শুরু করে। ফলে ধীরে ধীরে হজম ক্ষমতা কমে যায়। সেই সঙ্গে অ্যাসিড-অ্যালকেলাইন ব্যালেন্স বিগড়ে গিয়ে নানাবিধ পেটের রোগ শরীরে এসে বাসা বাঁধে।

৩। শরীরে আয়রনের মাত্রা কমে যায়ঃ একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়ে গেছে যে দীর্ঘ দিন ধরে বেড টি খেয়ে গলে শরীরের পক্ষে ঠিক মতো আয়রন শোষণ করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। ফলে অ্যানিমিয়ার মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়।

৪। শরীরে টক্সিনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়ঃ সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রথমেই এক গ্লাস জল খাওয়া উচিত, যাতে শরীরে জমে থাকা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদান বেরিয়ে যেতে পারে। কিন্তু এমনটা না করে যদি এক কাপ চা পান করেন, তাহেল টক্সিক উল্টে আরও বেড়ে যায়। ফলে শরীরের একাধিক ভাইটাল অ্যারগান, যেমন- লিভার, কিডনি এবং ফুসফুসের মারাত্মক ক্ষতি হয়।

৫। দাঁতের স্বাস্থ্য খারাপ হয়ে যায়ঃ দাঁত না ব্রাশ করে চা বা কফি খেলে মুখ গহ্বরের অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে দাঁতের উপরের আবরণ বা এনামেল নষ্ট হয়ে যেতে শুরু করে। ফলে এক সময়ে গিয়ে দাঁতের ক্ষয় বৃদ্ধি পায়। এমন অভ্যাসের কারণে জিনজিভাইটিস সহ একাধিক গাম ডিজিজ হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়। তাই দাঁতকে দীর্ঘদিন সুস্থ রাখতে দয়া করে বেড টি পান করা থেকে বিরত থাকা উচিৎ।

You May Also Like