|

জামিন পেলেন সালমান খান

কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় শনিবার (৭ এপ্রিল) জামিন পেয়েছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান।

জামিন সংক্রান্ত এ মামলার রায় দিয়েছেন যোধপুর আদালত এর বিচারক রবীন্দ্রকুমার জোশী।

জানা গেছে, ৫০ হাজার টাকা জরিমানার ভিত্তিতে এদিন সালমানের জামিন মঞ্জুর করে যোধপুর আদালত। আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে সাজা ঘোষণা।

শনিবার (৭ এপ্রিল) কিংবা রবিবার (৮ এপ্রিল) জেল থেকে ছাড়া পাবেন তিনি।

এ দিন সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ জোধপুর সেশনস কোর্টে শেষ হয় সালমান খানের জামিনের শুনানি।

এরপর বিচারক জোশী জানান, দুপুরে এ বিষয়ে রায় শোনাবেন তিনি। সেই অনুসারে দুপুর ৩টা নাগাদ রায় ঘোষণা করেন বিচারক রবীন্দ্রকুমার জোশী।

কিন্তু শনিবার (৭ এপ্রিল) সকাল থেকে সালমানের জামিন সংক্রান্ত মামলা নিয়ে এক প্রকার ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। কারণ, শুক্রবার (৬ এপ্রিল) বিচারক রবীন্দ্রকুমার জোশী-সহ ৭২ জনকে বদলির নির্দেশ দেয় প্রশাসন।

তবে, বিচারক বদলির এই প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ করতে ৭ দিন সময় লাগে। সে জন্য এ দিন জোশীর এজলাসেই হয় সালমান খানের জামিন সংক্রান্ত মামলার শুনানি।

দীর্ঘ ২০ বছর আগে কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড পাওয়ার পর থেকেই সালমানকে রাখা হয়েছে জোধপুর সেন্ট্রাল জেলে। শুক্রবার রাতে তাকে ডাল, রুটি, তরকারি খেতে দেওয়া হয়।

জোধপুর সেশনস কোর্টে জামিনের আবেদন জানিয়ে, সালমানের তরফ থেকে বলা হয়েছে, যে সাক্ষীদের কথার উপর ভিত্তি করে এই মামলার সাজা ঘোষণা করা হয়েছে, তাদের মন্তব্য মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়। শুক্রবার বেশ কিছুক্ষণ শুনানির পর রায় দান স্থগিত রেখে ছিলেন বিচারপতি রবীন্দ্রকুমার জোশী।

এর আগে, কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হয় সালমান খানের। সাজা ঘোষণা হওয়ার পরই যোধপুর সেন্ট্রাল জেলের ২ নম্বর ঘরে পাঠানো হয় সালমানকে। কয়েদি নম্বর ১০৬! গত বৃহস্পতিবার জেলের ২ নম্বর ঘরেই রাত কাটে ‘ভাইজান’ খ্যাত বলিউড সুপারস্টার সালমান খান’র।

সংবাদটি 132 বার পঠিত
advertise