|

আদালতের রায়ে মেয়ের অভিভাবকত্ব পেলেন অভিনেত্রী বাঁধন

দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর একমাত্র মেয়ে মিশেল আমানি সায়রার অভিভাবকত্ব পেয়েছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী বাঁধন। গত বছর ৩রা আগস্ট মেয়ের কাস্টডি চেয়ে মামলা করেছিলেন তিনি। ঢাকার দ্বাদশ সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালতের বিচারক গতকাল দেয়া রায়ে বলেছেন, কন্যাশিশুর অভিভাবক হচ্ছেন মা। মায়ের জিম্মায়ই মেয়ে থাকবে। আদালত আরো জানান, সায়রার বাবা মাশরুর সিদ্দিকী মাসে কেবল দুইদিন মায়ের বাড়িতে গিয়ে মায়ের উপস্থিতিতে মেয়েকে দেখে আসবেন, কিন্তু কন্যার সর্বোত্তম মঙ্গলের জন্য মায়ের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। এই রায়ে তিনি আরো বলেন, কন্যাশিশুকে নিয়ে মা দেশের ভেতরে এবং বাইরে যেতে পারবেন, যেহেতু মা-ই কন্যাশিশুর অভিভাবক। এই রায়ের পর দারুণ আনন্দিত বাঁধন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মেয়ের অভিভাবকত্ব পাওয়ার জন্য গত নয় মাস আমি অনেক সংগ্রাম করেছি। মেয়েকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগেছি। কিন্তু এখন আমি নিশ্চিন্ত। মাননীয় আদালত সাধারণ কাস্টডি নয়, বরং মেয়ের সম্পূর্ণ গার্ডিয়ানশিপ আমাকে দিয়েছেন। সায়রার বয়স সাড়ে ছয় বছর। সানবিমস স্কুলে কেজি ওয়ানে পড়ছে সে। এদিকে গতকাল রায়ের সময় আদালতে মাশরুর সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন না। তবে তার আইনজীবী ছিলেন। আর কঠিন সময়ে যারা তার পাশে থেকেছেন গতকাল তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বাঁধন। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২৬শে নভেম্বর মাশরুর সিদ্দিকীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহবিচ্ছেদ হয় বাঁধনের।

সংবাদটি 281 বার পঠিত
advertise