|

সাপে কাটা স্ত্রীকে বাঁচাতে গোবর চাপা! অতঃপর…

ভারতে একটি বড় অংশের লোকজনের কাছে গোবর অত্যন্ত পবিত্র। এই গোবরকে ঘিরে তাদের মধ্যে রয়েছে কুসংস্কার ও অন্ধ বিশ্বাস। তারা মনে করে গোবরের নানা রকম আশ্চর্য ক্ষমতা রয়েছে এবং তাদের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের কুসংস্কার ও অন্ধ বিশ্বাস প্রচলিত আছে। এদের মধ্যে কেউ কেউ মনে করেন গোবর দিয়ে সাপে কাটা রোগী ভালো করা সম্ভব।

সম্প্রতি এমন বিশ্বাস থেকেই সাপে কাটা এক রোগীকে গোবর চাপা দেয়া হয়। তবে সেই রোগীর কিছুক্ষণ পর মৃত্যু হয়েছে।

ভারতের উত্তর প্রদেশের বুলন্দশহর নামক এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।

বুলন্দশহরের বাসিন্দা দেবন্দ্রী। ৩৫ বছর বয়সী ওই নারী গত মাসের ২৫ এপ্রিল সকালে মাঠে কাঠ কুড়াতে গেলে তাকে সাপে কাটে। সঙ্গে সঙ্গে দেবন্দ্রী বাড়িতে এসে তার স্বামীকে সাপে কাটার কথা জানান। কিন্তু দেবন্দ্রীর স্বামী চিকিৎসার জন্য ডাক্তার না ডেকে স্থানীয় এক ওঝাকে ডেকে আনেন। আর এখানেই ঘটে বিপত্তি সেই ওঝার পরামর্শে স্বামী-স্ত্রীর শরীর গোবর দিয়ে ঢেকে দেন।

এ ঘটনায় অবশ্য এলাকার অনেকেই আপত্তি তুললেও তাদের কথা কানে তোলেননি স্বামী এবং সেই ওঝা। প্রায় ঘণ্টা খানেক দেবন্দ্রীকে গোবরের স্তূপের নিচে চাপা দিয়ে রাখা হয়। ফলে মারা যায় সে।

পরে এই বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। আর ওই ঘটনার পর থেকেই মৃত দেবন্দ্রী স্বামী ও ওঝা পলাতক রয়েছেন।

সংবাদটি 131 বার পঠিত
advertise