|

যারা কুৎসা গায়, তারা বেশিদূর এগোতে পারে না: নেইমার

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই নিন্দিত ও সমালোচিত হয়ে আসছেন নেইমার। কারণটা অবশ্য এরই মধ্যে সবাই জেনে গেছেন। প্রতিপক্ষের সামান্য ট্যাকলেই মাটিতে লুটিয়ে পড়ে গড়াগড়ি করা। এজন্য তো তাকে সেরা অভিনেতার তকমাই দিয়ে দিচ্ছেন অনেকে।

তবে একে থোড়াই কেয়ার ব্রাজিল যুবরাজের। বললেন, আমি এসব নিয়ে ভাবি না। যাদের সময় অফুরন্ত, যাদের কাজ নেই, কিছু করার নেই, প্রতিযোগিতায় নেই, তারাই এসব গেয়ে বেড়াচ্ছে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

ফেভারিটদের পতনের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত টিকে আছে ব্রাজিল। সোমবার মেক্সিকোকে ২-০ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। সেই ম্যাচে জয়ের নায়ক নেইমার। নিজে একটি করার পাশাপাশি সতীর্থ ফিরমিনোকে দিয়ে করিয়েছেন এক গোল।

এমন ম্যাচেও নাটক করতে দেখা গেছে সাম্বা তারকাকে। একাধিকবার আশ্রয় নিয়েছেন অভিনয়ের। বিষয়টি বেশ দৃষ্টিকটু ঠেকেছে ফুটবল বোদ্ধাদের একাংশে কাছে। এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে তো রীতিমতো হাস্যরসের হিড়িক পড়ে গেছে। এ নিয়ে তিলকে তাল বানিয়ে ছেড়েছেন মেক্সিকো অধিনায়ক আন্দ্রেস গুয়ার্দাদো।

সবাইকে ধুয়ে দিয়েছেন নেইমার। কাউকে একহাত নিতে ছাড়েননি তিনি, যারা বেশি কথা বলছে। তারা নিপাত যাক। মাঠের বাইরে তাদের কথাবার্তা শোভনীয় নয়। একেবারে অপমানজনক। আমি মনে করি, অহেতুক মানুষের সমালোচনা করা নির্বুদ্ধিতার পরিচয়। আর যারা এসব করে তারা বেশিদূর এগোতে পারে না। কথাটা মনে হাড়ে হাড়ে ফলে গেছে।

নেইমার হয়তো এসব কথাবার্তা বলে সমালোচকদের পাশাপাশি মেক্সিকানদের ধুয়ে দিয়েছেন। কারণ, তারাই বিষয়টি চাউর করে বেশি। এবার ব্রাজিল প্রিন্সের বিষে নীল হয়ে দেশে ফিরতে হচ্ছে তাদেরই।

সংবাদটি 99 বার পঠিত
advertise