|

সিলেটের যে আসনগুলো আওয়ামী লীগের কাছে চান এরশাদ!

সুরমা ভিউ।। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ৩০০ আসনে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করেছেন। বর্তমান সংসদে জাতীয় পার্টির সরাসরি ৩৪ জন সদস্য রয়েছেন। মহাজোটের শরিক হিসেবে এরশাদ এই ৩৪ জনের সঙ্গে আরও ৩৬ জন মিলিয়ে ৭০টি আসন আওয়ামী লীগের কাছে চান। যদিও ১০০টি আসনের কথা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে ক্ষমতায় এলে সরকারে জাপার ১০ থেকে ১২ জনকে মন্ত্রী করারও প্রস্তাব রয়েছে।

যাদেরকে এরশাদ মহাজোটের প্রার্থী চান তার মধ্যে বর্তমান সংসদের জাপার ৩৪ এমপি। বাকি ৬৬ জনের নাম ২৬৬ আসন থেকে চূড়ান্ত করবেন এইচ এম এরশাদ। ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টিকে ৭০টি আসনে ছাড় দিতে চেয়েছিল। বিএনপি নির্বাচনে এলে জাপাকে মহাজোটে রেখে না এলে বিরোধী দলে দিয়ে এই ছাড় দেওয়ার কৌশল নিয়ে আলোচনা রয়েছে।

বর্তমান জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী জাপার ৩৪ জন সংসদ সদস্যের মধ্যে সিলেট বিভাগের তিন জেলা থেকে রয়েছেন সিলেট-২ আসনে ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী, সিলেট-৫ আসনে সেলিম উদ্দিন, সুনামগঞ্জ-৪ আসনে পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্, হবিগঞ্জ-১ আসনে মুনিম চৌধুরী বাবু।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে প্রাপ্ত তালিকা অনুযায়ী জাতীয় পার্টিসহ সম্মিলিত জাতীয় জোটের পক্ষ থেকে সিলেট বিভাগের মধ্যে সিলেট-১ আসনে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, সিলেট-২ ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী, সিলেট-৩ অ্যাডভোকেট কাইয়ুম ও উসমান আলী, সিলেট-৪ তাজ রহমান, সিলেট-৫ সেলিম উদ্দিন ও সাব্বির আহমেদ, সিলেট-৬ তাজ রহমান ও সেলিম উদ্দিন, হবিগঞ্জ-১  মনিম চৌধুরী বাবু, হবিগঞ্জ-২ শংকর পাল, হবিগঞ্জ-৩ আতিকুর রহমান আতিক, সুনামগঞ্জ-৪ পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ-৫ আ ন ম ওয়াহিদ কনা মিয়া ও জাহাঙ্গীর আলম।

প্রার্থীতার বিষয়ে দলের মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার জানান- জাতীয়পার্টি আগামী নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে। সম্ভাব্য প্রার্থীদের গ্রিন সিগনাল দিয়ে এলাকায় কাজ করতে নির্দেশ দিয়ে রেখেছেন তারা। রাজনীতিতে শেষ কথা বলতে কিছু নেই। নির্বাচনের আগে হয়তো আরও হেভিওয়েট প্রার্থী আমাদের দলে যোগদান করবেন, অপেক্ষা করুন নতুন কোনো চমকের।

সংবাদটি 522 বার পঠিত
advertise