|

প্রতি মাসে কত পারিশ্রমিক পান মাশরাফি-সাকিবরা?

বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পাঁচ খেলোয়াড় হলেন- ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা, টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, দেশ সেরা ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল, উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম এবং অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে ইনজুরিতে পড়ে এশিয়া কাপ থেকে ছিটকে গেলেন টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল। এরপর টুর্নামেন্টের মাঝ পথে আঙুলের ইনজুরির ব্যাথা বেড়ে যাওয়ায় দেশে ফিরে আসেন বিশ্ব অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। পাঁজরের ইনজুরি নিয়েই খেলেন বাংলাদেশ দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এই আসরে পাঁজরের চোট নিয়ে লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করেছেন তিনি।

এছাড়া টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে রুবেলের বলে শোয়েব মালিকের উড়ন্ত ক্যাচ নিয়েছিলেন মাশরাফি। সাথে সাথে ডান হাতের কনিষ্ঠা থেকে রক্ত ঝরতে দেখা যায়। ব্যান্ডেজ করে ফের মাঠে নামেন। ম্যাচের পর আর এক্স-রে করান নি তিনি। সেই ইনজুরি নিয়েই ভারতের বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচ খেলেছিলেন কাপ্তান মাশরাফি। এরপর দেশে ফিরে এক্স-রে করে শোনানো হল দুঃসংবাদ। ভেঙে গেছে মাশরাফির ডান হাতের কনিষ্ঠা, ব্যান্ডেজ করা হয়েছে।

ফলের জিম্বাবুয়ে সিরিজে বাংলাদেশ পাচ্ছে না ৪ সিনিয়র খেলোযাড়কে। কেননা, পাঁজরের ইনজুরিতে ভুগছেন মুশফিকুর রহিম। যা সারতে আরও ৬ সপ্তাহের মতো সময় লাগবে।

তাই বলা যায়, বাংলাদেশ দলের ৪ লিজেন্ডই ইনজুরিতে আক্রান্ত। ফলে আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগে বাংলাদেশ শিবিরে দুঃসংবাদ।

টাইগার ক্রিকেটারদের নিয়ে সমর্থকদের আগ্রহ অনেক। ক্রিকেটপ্রেমীরা তাদের পরিবার থেকে শুরু করে প্রফেশন সব বিষয়েই জানতে অতি আগ্রহ প্রকাশ করেন। সমর্থকদের মধ্যে একটা বড় অংশই জানেন না তার পছন্দের তারকা ক্রিকেটারের পারিশ্রমিক কত?

চলুন জেনে নেয় যাক, বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাদের বেতন সম্পর্কে-

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ‘এ প্লাস’ শ্রেণিতে পড়েছেন চার সিনিয়র খেলোয়াড়- মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। চারজনই মাসিক বেতন হিসেবে পান ৪ লাখ টাকা করে। তিন সংস্করণের অধিনায়ক মাশরাফি ও সাকিব পাচ্ছেন ২০ হাজার টাকার প্রণোদনা। এছাড়া বাংলাদেশ টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক তামিম পাচ্ছেন ১০ হাজার টাকার প্রণোদনা।

‘এ’ শ্রেণির পড়েছেন মাত্র একজন খেলোয়াড়- মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তিনি মাসিক বেতন হিসেবে পান ৩ লাখ টাকা।

‘বি’ শ্রেণিতে থাকা ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার ও মুমিনুল হকের মাসিক বেতন ২ লাখ টাকা।

‘সি’ শ্রেণিতে থাকা রুবেল হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, তাসকিন আহমেদ ও মোস্তাফিজুর রহমান বেতন পান দেড় লাখ টাকা করে।

আর ‘ডি’ শ্রেণির পড়েছেন তিন ক্রিকেটার মেহেদী হাসান মিরাজ, কামরুল ইসলাম ও তাইজুল ইসলাম তারা মাসিক বেতন পান ১ লাখ টাকা করে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে এই বেতন কাঠামো কার্যকর হয়েছে।

সংবাদটি 39 বার পঠিত
advertise