|

যেভাবে চার্জ করলে ফোনের ব্যাটারি দীর্ঘদিন টিকবে

নতুন স্মার্ট ফোন কেনার কিছুদিন পরেই অনেকের ব্যাটারি দুর্বল হয়ে যায়। স্মার্ট ফোন ফুল চার্জ করে বাইরে বের হতে না হতেই চার্জ শেষ। আর তাই সারাক্ষণই স্মার্ট ফোনের চার্জার হাতে নিয়ে ছুটাছুটি করতে হচ্ছে এখানে ওখানে। এমন বিড়ম্বনায় পড়েছেন নিশ্চয়ই কখনো না কখনো। স্মার্টফোনে চার্জ দেওয়ার সময় সতর্ক থাকা জরুরি।

প্রতিটি ব্যাটারির একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকে। স্মার্টফোনের ব্যাটারির ক্ষেত্রেও তাই। স্মার্টফোন ব্যবহারের ধরনের ওপর এর ব্যাটারির আয়ু নির্ভর করে। এ ক্ষেত্রে মুঠোফোনে চার্জ দেওয়ার পদ্ধতি ও চার্জারের ধরন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যেমন সারা রাত মুঠোফোন চার্জ দিয়ে রাখলে দীর্ঘ মেয়াদে ব্যাটারির আয়ু কমে। অন্যদিকে সস্তা চার্জার ব্যবহারে স্মার্টফোন ও ব্যাটারির বিপদ ডেকে আনতে পারে। অনেক সময় বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।

স্মার্টফোনে চার্জ দেওয়ার কয়েকটি পরামর্শ জেনে নিন:

সারা রাত চার্জ নয়: অনেকেই রাতের বেলা ফোন চার্জে দিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে উঠে দেখা যায়, ১০০% চার্জ হয়ে গেছে। সারা রাত ফোনে চার্জ দেয়ার এই প্রবণতা আমাদের অনেকের মধ্যেই দেখা যায়। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে, সারা রাত চার্জ দেয়ার ফলে ফোনের ব্যাটারি বাজেভাবে আক্রান্ত হয়। এছাড়া সারা রাত চার্জের ফলে ব্যাটারি অতিরিক্ত গরম হয়ে বিস্ফোরণও ঘটতে পারে।

তাই এই কাজটি সব সময় এড়িয়ে চলা উচিত। ব্যাপারটা অনেকটা এরকম যে, আপনি একটি গ্লাস পানি দিয়ে পূর্ণ হবার পরেও অবিরত পানি ঢালছেন এবং গ্লাস উপচে পানি পড়ছে। যদিও এতে গ্লাসের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না, কিন্তু পানির অপচয় হচ্ছে। ঠিক তেমনি, একটানা সারা রাত চার্জ দেয়ার ফলে আপাতদৃষ্টিতে ফোনের কোনো ক্ষতি না হলেও ব্যাটারির চার্জ ধারণ ক্ষমতা কমতে থাকে।

সব সময় নিজস্ব চার্জার: স্মার্টফোনে চার্জ দেওয়ার সময় নিজস্ব চার্জার বিশেষ করে ফোনের সঙ্গে থাকা আসল চার্জারটি ব্যবহার করুন। স্মার্টফোনে মাইক্রো ইউএসবি পোর্টে অনেক চার্জার সমর্থন করতে পারে। তবে আসল চার্জার ব্যবহার না করলে ধীরে ধীরে ব্যাটারির চার্জ ধরে রাখার ক্ষমতা কমতে থাকে।

সস্তা চার্জারকে না বলুন: অপরিচিত নির্মাতার তৈরি চার্জার ব্যবহারে সতর্ক থাকুন। কারণ এ ধরনের চার্জারে কোনো নিরাপত্তাপদ্ধতি ব্যবহার করা হয় না। এতে ফোনে অতিরিক্ত চার্জ বা ফোন গরম হয়ে যেতে পারে। অ্যাডাপ্টারে সমস্যা দেখা দিলে ফোন ও ব্যাটারি দুটোই নষ্ট হতে পারে।

চার্জ ধরে রাখুন: আপনার মোবাইল ফোনে বেশি করে চার্জ রাখুন। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারিতে অধিকাংশ সময় ৫০ শতাংশ বা তার বেশি চার্জ রাখবেন। বেশি চার্জ ধরে রাখলে ব্যাটারি ভালো থাকবে বেশি দিন।

ফোন ঠান্ডা রাখুন: ফোন যতটা সম্ভব ঠান্ডা রাখুন। লি-আয়ন ব্যাটারি বেশি চার্জ হলেও কোনো সমস্যা হয় না। তবে ফোনটি যেখানে চার্জ দিচ্ছেন বা রাখছেন, সে জায়গা যেন অতিরিক্ত গরম না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। এতে ফোন অতিরিক্ত গরম হতে পারে। ফোন আবার অতিরিক্ত ঠান্ডা জায়গায় রাখাও ঠিক নয়। খুব বেশি ঠান্ডা বা অতিরিক্ত গরম ব্যাটারির কার্যক্ষমতার ওপর প্রভাব ফেলে।

ব্যাটারি খুলে রাখলেও চার্জ রাখুন: ব্যাটারি যদি খুলে রাখতে চান, তবে তাতে কমপক্ষে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ রেখে দিন। কোনো ফোন শূন্য চার্জে বেশি দিন রাখবেন না। লি-আয়ন ব্যাটারি অব্যবহৃত অবস্থাতেও প্রতি মাসে ৫ থেকে ১০ শতাংশ চার্জ শেষ করে। এটি অবশ্য তৈরির ওপর নির্ভর করে কিছুটা। বেশি দিন চার্জশূন্য রাখলে ব্যাটারি আর চার্জ ধরে রাখার অবস্থায় না-ও থাকতে পারে।

চার্জের সময় সুরক্ষা কেস খুলে রাখুন: অনেকেই ফোনের বাড়তি সুরক্ষার জন্য কেসিং ব্যবহার করেন। কিন্তু চার্জ দেওয়ার সময় কেসিং খুলে রাখা ভালো। সাধারণত ফোন চার্জ দিলে ব্যাটারি কিছুটা গরম হয়। কিন্তু ফোনের কেসিং থাকলে তাপ আটকে ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে যায়।

চার্জশূন্য করবেন না: ব্যাটারির চার্জ একেবারে নিঃশেষ করে আবার শতভাগ পূর্ণ করার অভ্যাস বদলে ফেলুন। এতে ব্যাটারির আয়ু কমে যায়। বিশেষজ্ঞরা বলেন, শূন্য থেকে ১০০ রিচার্জ করাকে ‘চার্জ সাইকেল’ বলে। মাসে একবার চার্জ সাইকেল পূর্ণ করতে পারেন। এতে ব্যাটারির কার্যকারিতা বাড়বে।

দ্রুতগতিতে চার্জ সুবিধাজনক নয়: সব সময় দ্রুতগতিতে চার্জ হয় এমন চার্জার সুবিধাজনক নয়। ব্যাটারি ভালো রাখতে দ্রুতগতির চার্জার ব্যবহারে সতর্ক থাকতে হবে। দ্রুতগতির চার্জার ফোনের ব্যাটারিতে উচ্চ ভোল্টেজ পাঠায়, যা দ্রুত তাপমাত্রা বাড়ায়। স্বাভাবিক চার্জিং পদ্ধতিতে চার্জ দিতে পারেন।

থার্ড পার্টি ব্যাটারি অ্যাপস: অনেকে মুঠোফোনের ব্যাটারি দীর্ঘক্ষণ চালানোর জন্য থার্ড পার্টির অ্যাপস ব্যবহার করেন। ব্যাটারি দীর্ঘদিন টেকাতে এসব অ্যাপ ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। অনেক অ্যাপ্লিকেশন ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু থাকে বলে ব্যাটারির ওপর প্রভাব ফেলে।

শট-সার্কিট ঠেকাতে পাওয়ার ব্যাংক: ভোল্টেজ ওঠা-নামা, শট-সার্কিট, অতিরিক্ত চার্জ ঠেকাতে সক্ষম এমন পাওয়ার ব্যাংক কাজে লাগাতে পারেন। পাওয়ার ব্যাংকের সঙ্গে লাগানো অবস্থায় স্মার্টফোন ব্যবহার করবেন না। এতে স্মার্টফোন বেশি গরম হয় এবং ব্যাটারির ক্ষতি হয়।

সংবাদটি 32 বার পঠিত
advertise