|

শান্ত এবং আকরাম দু’জনই সিলেটের ইতিহাসে নাম লেখালেন

 

সুরমা ভিউ।। সব আয়োজন আগে থেকেই সম্পন্ন ছিল। প্রস্তুত ছিল ২২ গজ। সাথে দুই দলও ছিলো প্রস্তুত। অপেক্ষা ছিল কেবল মাঠে নামার। তারও অপেক্ষার অবসান ঘুচিয়ে এরমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে ব্যাট-বলের লড়াই। ক্রিকেটের অভিজাত এ ফরমেটের সকল রীতিনীতি মেনেই শুরু হয়েছে সিলেটের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম এক অধ্যায়। এই টেস্ট ম্যাচের মধ্য দিয়েই সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম টেস্টের অষ্টম ভ্যানু হিসেবে নাম লিখালো। তবে এ ম্যাচ শুরুর আগে সিলেটের মাটিতে আয়োজনে ছিলো একটু ভিন্নতা। দেশের ক্রিকেটে প্রথম বারের মতো ও বিশ্বে তৃতীয় বারের মতো কোন ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টেস্ট ম্যাচ শুরুর আগে বাজানো হলো ঘণ্টা।

ইংল্যান্ডের লর্ডস ও ভারতের ইডেন গার্ডেনসে ঘণ্টা বাজিয়ে টেস্ট শুরু করার একটা রীতি আছে। দেশের অষ্টম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে শনিবার থেকে যাত্রা শুরু হলো সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের। আর তাই এখানে অনুসরণ করা হলো সেই রীতি। বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের মধ্যকার প্রথম টেস্ট শুরুর আগে ‘দ্য ফাইভ মিনিট বেল’ নামে পরিচিত এই ঘণ্টা বাজানো হয়।

তবে ঘণ্টা কে বাজাবেন, সেটা নিয়ে একটা ধোঁয়াশা ছিল গেল কিছুদিন। তবে গতকালই আয়োজকরা জানিয়েছিলেন এ বেলটি বাজাবেন বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের সাবেক ক্রিকেটার আকরাম খান। আয়োজকদের কথা মতই সিলেট টেস্টে ঘণ্টা বাজানোর সম্মান পেলেন বাংলাদেশ দলের সাবেক এ অধিনায়ক। এসময় তাঁর সাথে ছিলে বাংলাদেশ দলের সাবেক পেসার শান্তও।

শুধু ঘণ্টা বাজানোই নয়, সিলেটের অভিষেক টেস্টকে কেন্দ্র করে নেওয়া হয় আরও বেশ কিছু উদ্যোগ। সিলেট বিভাগের সাবেক ক্রিকেটারদের জন্য বিশেষ সম্মাননার ব্যবস্থা করা হয়। দু’দলের খেলোয়াড়দের জন্য বিশেষ স্মারক উপহার। এ ছাড়া ম্যাচের টসটিও হয় বিশেষ একটি মুদ্রায়। সব মিলিয়ে, আয়োজনের আতিশয্য নিয়ে তৈরি নয়নাভিরাম সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের টেস্ট অভিষেক হলো।

 

সংবাদটি 133 বার পঠিত
advertise