ছাতকে মানিককে আল-ইসলাহ এবংতালামীযের সমর্থন

ছাতক প্রতিনিধি।।  সুনামগঞ্জ-৫(ছাতক-দোয়ারাবাজার) নির্বাচনী এলাকায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনিত সংসদ সদস্য প্রার্থী বর্তমান সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিককে সমর্থন জানিয়েছেন ফুলতলী পন্থী বাংলাদেশ আঞ্জুমানে আল ইসলাহ ও তালামীযে ইসলামীয়াহসহ কয়েকটি ইসলামী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও আলেমগণ।
ছাতকের একটি কমিউনিটি সেন্টারে এ উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুহিবুর রহমান মানিক।
ছাতক জালালিয়া ফাযিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওঃ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে ও কালারুকা দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওঃ মাহবুবুর রহমান তাজুলের পরিচালনায় সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আল ইসলাহর তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক মাওঃ সিরাজুল ইসলাম ফারুকী।
বক্তব্য রাখেন, বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আল ইসলাহর সাংগঠনিক সম্পাদক মাওঃ মুস্তাক আহমদ, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওঃ আশিক উদ্দিন বিপ্লবী, অফিস সম্পাদক মাওঃ মুক্তার আহমদ, তথ্য সম্পাদক মাওঃ কামজ্জামান, সুনামগঞ্জ জেলা তালামীযের সভাপতি হাঃ রফিকুল ইসলাম তালুকদার,সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মতিন রাজন, প্রচার সম্পাদক তোফায়েল আহমদ মিনার, সহ তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক আল আমিন, সদস্য মাহবুবুল আলম, ছাতক উপজেলা আল ইসলার সভাপতি মাওঃ এম এ মতিন, সহ-সভাপতি মাওঃ নজমুল হক নসিব, সাধারণ সম্পাদক মাওঃ কবর আহমদ লতিফি প্রমুখ।
এসময় মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে এমন একটা সময় অতিবাহিত হয়েছিল যে রাজনীতির হীন স্বার্থে সর্বত্র এ প্রচারণা চালানো হয়েছিল আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে ইসলাম ধর্ম থাকবে না।এমন প্রচারণাও চালানো হতো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে মসজিদে আজানের পরিবর্তে উলুধ্বনি হবে।কিন্তু এই অপপ্রচারে সর্বসাধারণ কান দেয়নি।সুদীর্ঘ এক দশক ধরে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রক্ষমতায়। বাংলাদেশের মানুষের সার্বিক সমৃদ্ধি ও উন্নয়নের পাশাপাশি সরকার ইসলাম ও মুসলমানদের জন্য বহু কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।
বাংলাদেশে ধর্মীয় সংস্কৃতির বিকাশ ও জনগণকে ধর্মীয় চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে জনগণের নৈতিক মান ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে এই সরকার কাজ করে যাচ্ছে।তিনি দেশের উন্নয়নের স্বার্থে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।
সভায় আলেমগণ তাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে সমর্থন জানান এবং সকল প্রকার গুজব ও অপপ্রচারের জবাব দিয়ে দেশের জন্য কাজ করবেন বলে অঙ্গীকার ব্যাক্ত করেন।