ছাতকে যত্রতত্র বিক্রি হচ্ছে যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয় : বিপথগামী হচ্ছে যুবসমাজ

হেলাল আহমদ, ছাতক।।  ছাতকের বিভিন্ন হাট-বাজারে প্রকাশ্যে যত্রতত্র বিক্রি হচ্ছে যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয়। বিনা বাঁধায় হাতের কাছে পাওয়া এসব যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয় খেয়ে দিন দিন ধ্বংসের পথে ধাবিত হচ্ছে যুব সমাজ। সহজে পাওয়া যায় বলে শহর-গঞ্জের কিছু সংখ্যক যুবকরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার পুরুষরা ঝুকছেন বিএসটিআই’র অনুমোদনহীন যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয় পানের দিকে। আর এসব পানীয় পানের কু-প্রভাবে যুব সমাজ দ্বারা অহ-রহই ঘটে চলেছে অসামাজিক কার্যকলাপ। ব্যাঙ্গের ছাতার মতো যত্রতত্র গজিয়ে উঠা লাইসেন্স বিহীন ওষুধের ফার্মেসীসহ বিভিন্ন দোকানে এসব অবৈধ যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয় বিক্রি হতে দেখেও যেনো না দেখার ভান করে নিরব দর্শকের ভূমিক পালন করছে প্রসাশন।
জানা গেছে, দেশীয় ও পার্শ্ববর্তী দেশগুলো থেকে আসা বিভিন্ন অসাধু কোম্পানীর সরবারহকৃত ডাবল হর্স, হর্স পাওয়ার, ম্যান পাওয়ার, পাওয়ার ম্যান, তৃপ্তি পাওয়ার, মাসরুম, পাগলু, নাইট পাওয়ার, জিনসিং পানীয় ছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানীর প্রস্তুতকৃত ইন্টাগ্রা, সেনেগ্রা, টেনেগ্রা, ফরজেস্ট, ক্যাবেটরা, টার্গেট, ইডেগ্রা ট্যাবলেটসহ বিভিন্ন কোম্পানীর প্রস্তুতকৃত অবৈধ যৌন উত্তেজক ট্যাবলেটে বাজার সয়লাব হয়ে গেছে। হাট-বাজারে গড়ে উঠা লাইসেন্স বিহীন ওষুদের ফার্মেসী, কনফেকশনারী, ভেরাইটিজ স্টোরসহ বিভিন্ন দোকানে এখন প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে এসব যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয়। এসব ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন বা ভ্রাম্যমান আদালতের পক্ষ থেকে কোন প্রকার নজরদারি করা হচ্ছেনা বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রশাসনের নীরবতার সুযোগে যৌন উত্তেজক এসব ট্যাবলেট ও পানীয় পানের ফলে যৌন অপরাধ প্রবনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি জনস্বাস্থ্যের মারাত্মক বিপর্যয় ঘটতে পারে বলে স্থানীয় সচেতন মহল আশংকা প্রকাশ করছেন। স্থানীয় সচেতন মহলের অভিযোগ, শহর-গঞ্জের ছোট বড় প্রায় প্রত্যেকটা হাট-বাজারে প্রকাশ্যে এসব যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও পানীয় বিক্রি হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদারকীর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে দেখা যায় না। ফলে হাট-বাজারে গড়ে উঠা লাইসেন্স বিহীন ফার্মেসীসহ বিভিন্ন দোকানে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানীর প্রস্তুতকৃত এসব পানীয় ও ট্যাবলেট। প্রত্যহ এসব পানীয় পান করতে এবং ট্যাবলেট কেনার জন্য দোকানের সামনে ভীড় জমায় যুবক ও বিভিন্ন পর্যায়ের সেবনকারীরা।
এ বিষয়ে একাধিক চর্ম ও যৌন বিভাগের চিকিৎসকের সাথে কথা হলে জানান, নিয়মিত যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট কিংবা পানীয় সেবন করলে যৌন শক্তি একেবারে হারিয়ে যায়। এমন কি মানব শরীরের গুরুত্বপূর্ণ কিডনি ড্যামেজ, যৌনশক্তি স্থায়ীভাবে হারিয়ে ফেলাসহ নানারকম ক্ষয়ক্ষতির আশংকা রয়েছে।
স্থানীয় সচেতন মহলের অভিমত, প্রশাসন ও ভ্রাম্যমান আদালতের দায়িতত্বশীল কর্মকর্তাদের অতিসত্ত্বর এ সকল যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও মানব দেহের ক্ষতিকারক পানীয় বাজারজাত ও বেচাকেনার বিষয়ে নজরদারী একান্ত প্রয়োজন। এর জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছেন স্থানীয় সচেতন মহল।