বিশ্বনাথে মেহগনি গাছ ফিরিয়ে দিয়ে প্রধান শিক্ষকের দুঃখ প্রকাশ

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি।।  সিলেটের বিশ্বনাথে রাতের আঁধারে চুরি করে সরিয়ে নেওয়া লাখ টাকা মূল্যের সেই মেহগনি গাছ ফিরিয়ে দিয়েছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ আলম। গাছটি ফিরিয়ে দেয়ার পর ম্যানেজিং কমিটির ডাকা এক সভায় আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশও করেন তিনি। এতে ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দসহ সকলের সন্তুষ্ঠির প্রেক্ষিতে বিষয়টি নিস্পত্তি করা হয়। এরআগে গত ৫মে রোববার ভোরে কৌশলে লাখ টাকার মেহগনি গাছটি কেটে মূলপর্যন্ত উপড়ে ফেলে মেহগনির গোড়ায় ৩/৪ফুটের একটি নারিকেল গাছ রোপন করে রাখা হয়। এ ঘটনায় গ্রামবাসী, ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষক সমন্বয়ে কয়েক দফা বৈঠকসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগও দেওয়া হয়। কিন্তু প্রশাসন এ ক্ষেত্রে পদক্ষেপ নেওয়ার আগেই শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটি মিলে বিষয়টি নিষ্পত্তি করা হয়।

গত ১০ মে শুক্রবার রাতে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সালেহ আহমদ তোতার সভাপতিত্বে স্কুল মিলনায়তনে পরিচালনা কমিটি ও এলাকাবাসীর আয়োজনে এক সভায় প্রধান শিক্ষক দুঃখ প্রকাশ করেন। আর এতে সকলের সন্তুষ্টির মাধ্যমে মেহগনি গাছ সরানোর বিষয়টি নিস্পত্তি করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ মুরব্বী আব্দুল ওয়াদুদ বিএসসি, ইউপি সদস্য রাজুক মিয়া রাজ্জাক, আসাব আলী, আব্দুল হেকিম, হোসাইন আহমদ, হাজী আবুল কালাম, ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন, ঝুনু মিয়া, লিয়াকত আলী, খালেদ আহমদ বাদশাসহ আরও অনেকে।
এব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সালেহ আহমদ তোতা বলেন, রামধানা ও কামালপুর গ্রামের সচেতন ও গন্যমান্য ব্যাক্তিদের উপস্থিতিতে বিষয়টি নিস্পত্তি করা হয়েছে।
রামধানা প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো: শাহ আলম দুঃখ প্রকাশ করার কথা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, এটি মূলত চুরির উদ্দেশ্যে সরানো হয়নি, নিজের নিরাপত্তার জন্য সরিয়ে রেখেছিলেন তিনি। আর নারিকেল গাছ লাগানোর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, স্কুলের পরিবেশ রক্ষা ও ফলদ বৃক্ষ হিসেবে তিনি এটা লাগিয়েছেন।
গাছ কেটে দুঃখ প্রকাশ করলেই বিষয়টি শেষ হয়না দাবি করে রামধানার প্রাক্তণ মেম্বার জুনাব আলী বলেন, আইনীভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ার জন্যে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

You May Also Like