জগন্নাথপুর শ্রীধরপাশার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী শাহীন আলমকে খুজছে পুলিশ!

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি।। জগন্নাথপুরে শ্রীধরপাশার সংর্ঘষের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী শাহিন আলম,আফতর হোসেন,লিমন মিয়া,তুফেলাল,মারুফ মিয়াদের কে হন্য হয়ে খুজছে পুলিশ।

জানা যায়, গত ২ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে শ্রীধরপাশার কোরেশী গোষ্ঠীর দুই যুবকে রাস্তায়
পেয়ে শাহিন, মুর্শেদের নেতৃত্বে ২০-৩০ জনের সশস্র সন্ত্রাসীদল হামলা চালায় ।

উক্ত ঘটনায় কোরেশী গোষ্ঠির রাজু মিয়া বাদি হয়ে ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে জগন্নাথপুর থানায় মামলা দায়ের করেন ।মামলা নং ০২ জি আর ১৯৮ তারিখ ০৪/১১/২০১৮।

পরর্বতীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকতা জগন্নাথপুর থানার এসআই হাবিবুর রহমান-২ গত ৩১-০১-২০১৯ইং তারিখে ২৬ জন আসামীর বিরুদ্বে চার্জশীট এবং পলাতক আসামীদের বিরুদ্বে ওয়ারেন্ট ইস্যূর আবেদন করেন ।

গত ২২ এপ্রিল সুনামগঞ্জের বিজ্ঞ জুডিসিয়াল ম্যাজেষ্ট্রেট জগন্নাথপুর আদালত ২৬ জন আসামীর বিরুদ্ধে চার্জশীট গ্রহন করেন এবং পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যুর আদেশ দেন।

এ ব্যাপারে কোরেশী গোষ্ঠীর আইনজীবী এডভোকেট তৈয়বুর রহমান বাবুলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, শ্রীধরপাশায সংর্ঘষের ঘটনায় কোরেশী গোষ্ঠীর রাজু মিয়ার দায়েরকৃত জিআর-১৯৮/১৯ মামলায় আদালত চার্জশীট গ্রহন করেন এবং পলাতক আসামীদের বিরুদ্বে ওয়ারেন্ট ইস্যুর আদেশ দেন ।

কোরেশী গোষ্ঠী মুরুব্বি দেওয়ান আব্দুল খালিক জানান, আমার ভাতিজা সোহাগের উপর হামলাকারী মুর্শেদকে গত কিছুদিন আগে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছিলেন।আদালত আসামীদের বিরুদ্বে চার্জশীট গ্রহন করে পলাতক আসামী শাহিন আলম, আফতর, লিমন,তুফেলাল, মারুফদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করেন।

আমার ভাতিজার উপর হামলাকারী সন্ত্রাসী শাহিনসহ সকল আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই এবং আমরা জানতে পেরেছি ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী শাহিন আলম তার সিলেটস্হ হাউজিং এষ্টেটের ১৫১ করফুল ভিলা বাসায় অবস্হান করে সিলেট শহরে প্রকাশ্যে চলাফেরা করছে।ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামীদের ধরে জেল হাজতে প্রেরণ করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাই ।