দোয়ারাবাজারে অনৈতিক কাজে মসজিদের ইমাম আটক

দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারের পল্লীতে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকায় মসজিদের ইমামকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা। আটক ইমাম দুই সন্তানের জনক আলীনুর মিয়া (২৬) উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নের বাজিতপুর গ্রামের সফাত আলীর পুত্র।

একই উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের গিরিশনগর পূর্ব পাড়া জামে মসজিদে ইমামতিতে নিয়োজিত ছিলেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে পার্শ্ববর্তী খাগুরা গ্রামে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের খাগুরা গ্রামের মৃত শিপন মিয়ার বিধবা স্ত্রী দুই সন্তানের জননী সুমি আক্তার (২২) এর সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকাবস্থায় লম্পট ইমাম আলীনুর মিয়াকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন স্থানীয়রা।

এ সময় বিধবা সুমি আক্তার জানায়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই ইমাম (হুজুর) সাহেব আমার সাথে গত ৫ মাস ধরে দৈহিক মেলামেশায় লিপ্ত রয়েছেন। তখন এ ঘটনা শোনে স্থানীয় সালিশরা উভয়ের সম্মতি নিয়ে তাদেরকে বিয়ের পিঁড়িতে বসাতে চান। কিন্তু বাধ সাধলো আটক ইমামের প্রথম স্ত্রী। তার কোলজুড়ে রয়েছে ইমামের ঔরশজাত দুটি সন্তান। তাই স্বামীর দ্বিতীয় বিয়েতে সে রাজি না হলে রোববার বিকালে আটক আলীনুর মিয়াকে দোয়ারাবাজার থানায় সোপর্দ করা হয়।

জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে দোয়ারাবাজার থানার ওসি আবুল হাশেম বলেন, ধর্ষিতা সুমি আক্তার বাদী হয়ে ধর্ষক ইমাম আলীনুর মিয়ার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯/১ ধারায় দোয়ারাবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।