ছাত্রদলের কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা প্রার্থী হতে পারবে না বিবাহিতরা

বিএনপির ছাত্র সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য এবং গণতান্ত্রিক উপায়ে ছাত্র নেতৃত্ব তৈরির লক্ষ্যে আগামী ১৫ জুলাই জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কাউন্সিল-২০১৯ ঘোষণা করেছে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। আর ‘বিবাহিতরা ছাত্র নয়’- উল্লেখ করে এবারের কাউন্সিলে বিবাহিত কেউ প্রার্থী হতে পারবেন না বলে জানানো হয়েছে।

রবিবার (২৩ জুন) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কাউন্সিলের এ তারিখ ঘোষণা করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি শামসুজ্জামান দুদু।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, গণতান্ত্রিকভাবে ছাত্রদলের আগামী নেতৃত্ব নির্বাচন করার জন্য কাউন্সিল আয়োজন করা হয়েছে। ১৫ জুলাই অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করা হবে।

তিনি বলেন, নব উদ্যমে ছাত্রদলকে এগিয়ে নেয়ার জন্য কাউন্সিলের উদ্যোগ নিয়েছি। জুলাইয়ের ১৫ তারিখ সরাসরি নেতৃত্ব নির্বাচন হবে। এজন্য নির্বাচন কমিশন, বাছাই ও আপিল কমিটি করা হয়েছে। ভোটার তালিকা প্রকাশসহ পর্যায়ক্রমে ঘোষণা করা হবে।

এদিকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনকে প্রধান করে ছাত্রদলের কাউন্সিল উপলক্ষে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ সময় যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, ‘ছাত্রদলের কাউন্সিলের ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে আগামীকাল ২৪ জুন। ভোটার তালিকার আপত্তি গ্রহণ ২৫ জুন। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ ২৬ জুন। প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বিতরণ ২৭-২৮ জুন। মনোনয়ন গ্রহণ ২৯-৩০ জুন। প্রার্থিতা যাচাই বাছাই ১ থেকে ৩ জুলাই। প্রার্থীদের খসড়া তালিকা প্রকাশ ৪ জুলাই। প্রার্থীদের সম্পর্কে আপত্তি গ্রহণ ৫ জুলাই, আপত্তি নিষ্পতি ৬ জুলাই। চূড়ান্ত প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ ৭ জুলাই।’

এক প্রশ্নের জবাবে দুদু বলেন, বিবাহিতরা প্রার্থী হতে পারবেন না। তারা তো ছাত্রের মধ্যেই পড়ে না। তাদের প্রার্থী হওয়ার কোনও প্রশ্ন আসে না।

এছাড়াও প্রার্থী হতে ২০০০ সালে এসএসসি এবং রেজিস্ট্রেশন ১৯৯৮ সাল হতে হবে বলেও জানান তিনি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দুদু বলেন, ‘সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে শুধু সরাসরি ভোট হবে। আর বিবাহিতরা কোনও ছাত্র নয়। তাদের প্রার্থী হওয়ার কোনও প্রশ্নই আসে না।’

এসময় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ড. আসাদুজ্জামান রিপন, ফজলুল হক মিলন, অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, আজিজুল বারী হেলাল, আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, রাজিব আহসান সাবেক ছাত্রনেতা এ বি এম মোশাররফ হোসেন, ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিউল বারী বাবু, আমিরুল ইসলাম আলিম ও আকরামুল হাসান প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।