সাংসদ ফিরোজ রশীদের পুত্রবধূকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদের পুত্রবধূকে (ছেলের বউ) নিজ বাসা থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে, তিনি নিজেই নিজের পেটে গুলি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। ফিরোজ রশীদের পুত্রবধূর নাম মেরিনা শোয়েব।

রোববার (৭ জুলাই) রাতে ধানমন্ডির বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

মেরিনার বাবা-মা জানান, ফিরোজ রশীদের ধানমণ্ডির বাসায়ই এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক কলহের জেরে মেরিনাকে গুলি করা হয় বলেও দাবি তাদের।

মেরিনার বাবা সিরাজুল ইসলাম পাটোয়ারি জানান, স্বামীর সাথে মেরিনার ঝামেলা চলছিল।

ল্যাবএইড হাসপাতালে ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুর রহমান বলেন, মেরিনার পিঠে গুলি লেগেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তিনি এখন আইসিইউতে।

এ বিষয়ে ছেলেপক্ষ গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি। তবে পুলিশ বলছে, এটিকে আত্মহত্যার চেষ্টা বলে দাবি করেছেন ফিরোজ রশীদের পরিবার। ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানানো হয়।

ধানমন্ডি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জিল্লুর রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘কীভাবে ঘটনাটি ঘটেছে তা তদন্তের পর জানা যাবে। ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে পুলিশ সদস্যরা রয়েছেন। তারা বিষয়টি তদন্ত করছেন।’

মেরিনার বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, রাতে বাসায় কেউ ছিল না। তখন স্বামীর পিস্তল নিজেই নিজের পেটে ঠেকিয়ে গুলি করেন মেরিনা। গুলির বিষয়টি জানতে পেরে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে ল্যাবএইড হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তার অস্ত্রোপচার করা হয়।