জগন্নাথপুরে জায়গা দখলের চেষ্টা নিয়ে উত্তেজনা

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি।।  সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে জায়গা দখলের চেষ্টা নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যদিও মালিকরা জায়গার সীমানা চিহিৃত করার চেষ্টা করছেন।

জানাগেছে, জগন্নাথপুর পৌর শহরের হবিবনগর গ্রামের ডরের পাড়ে সরকারি জায়গায় টিনসেড ঘর বানিয়ে স্বামী-সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন শাহানারা বেগম নামের এক নারী। তবে এ ঘরের চার দিকে রয়েছে মালিকানা জমি। গত কয়েক দিন আগে ঘরের সামনে মালিকানা জায়গায় ছোট একটি টিনসেড ঘর বানিয়ে জায়গা দখলের চেষ্টা করেন ওই নারী। খবর পেয়ে গত ৯ জুলাই মঙ্গলবার বিকেলে উক্ত জায়গার মালিকানা দাবি করে ইকড়ছই গ্রামের জাহিদুর রশীদের লোকজন এ ঘর ভেঙে ফেলেন। এ ঘটনায় গ্রামের নাম ও ব্যক্তির নাম বিকৃত করে বাড়িঘর ভাংচুর ও মারপিটের অভিযোগ এনে ৫ জনকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন শাহানারা বেগম। এ ঘটনায় থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
১১ জুলাই বৃহস্পতিবার সরজমিনে দেখা যায়, অভিযোগকারী শাহানারা বেগমের বাড়িঘর ভাংচুর হয়নি। মারপিটের ঘটনাও প্রশ্নবিদ্ধ। এ সময় শাহানারা বেগম বলেন, আমি সরকারি জায়গায় থাকি। তবে মালিকানা জায়গায় ঘর বানানোর কারণ জানতে চাইলে এ জায়গা এনাম আহমদের বলে তিনি দাবি করেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এনাম আহমদ বলেছেন আমরা তার জায়গায় বসবাস করার জন্য। এ ব্যাপারে জাহিদুর রশীদ বলেন, এখানে ৪৪ শতক জায়গার মালিক আমি। আমার জায়গায় ঘর বানানোর কারণে আমরা বাধা দিয়েছি। যে কারণে মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছে ওই মহিলা। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে এনাম আহমদ বলেন, এখানে আমার ৯ শতক জায়গা রয়েছে। তবে আমার সাথে দিলদার হোসেন দিলার জায়গা আছে। আমাদের জায়গার সীমানা চিহিৃত হয়নি। শুনেছি দিলদার হোসেন দিলার জায়গা জাহিদুর রশীদের কাছে বিক্রি করেছেন। যে কারণে এ বিরোধের সৃষ্টি হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ২/১ দিনের মধ্যে সীমানা চিহিৃত করে বিষয়টির সমাধান করা হবে।