মামলার স্বাক্ষী হওয়ার সন্ত্রাসী হামলা, অপপ্রচার করা হচ্ছে – সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

সুরমা ভিউ।।  মামলার স্বাক্ষী হওয়ার কারনে এলাকার একটি সন্ত্রাসী চক্রের হামলা, হয়রানীসহ মানববন্ধন করে অপপ্রচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সিলেটের জগন্নাথপুর উপজেলার ওয়ারিছ আলী। গতকাল রোববার (১৪ জুলাই) উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের গড়গড়িকান্দি গ্রামের মৃত রোয়াব আলীর ছেলে ওয়ারিছ আলী সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গড়গড়িকান্দি গ্রামের নিরীহ শান্তিকামী কয়েকটি পরিবার এলাকার চিহিৃত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ ও মামলাবাজদের হয়রানী ও অত্যাচারের শিকার হচ্ছে। গ্রামের হারিছ উল্ল্যার ছেলে জামদ আলী, ছামির আলীর ছেলে এমরান, মিজান, জামদ আলীর ছেলে আলী আহমদ চক্র দীর্ঘদিন থেকে নিরীহ মানুষজনদের উপর বিভিন্নভাবে অত্যাচার চালিয়ে আসছে। নির্যাতিত লোকজনের পক্ষে মামলার স্বাক্ষী হওয়ায় তারা ক্ষেপে গিয়ে মামলা হামলা করে। সম্প্রতি সন্ত্রাসীরা মানববন্ধন করে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে উঠেপড়ে লেগেছে। চলতি বছর ৬ মার্চ কাজের লোক আফসার উদ্দিনকে এমরান, মিজান, জামদ আলী, আলী আহমদ সহ কয়েকজন সন্ত্রাসী মারধর করে। আহত আফসার উদ্দিনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় ৯ মার্চ আফসার উদ্দিন বাদী হয়ে ওই সন্ত্রাসী চক্রের বিরুদ্ধে বিশ^নাথ থানায় মামলা (মামলা নং-২) দায়ের করেন। এই মামলায় ওয়ারিছ আলী, তার চাচা মনোফর আলী, রওশন আলী, বারিক মিয়া সহ কয়েকজনকে স্বাক্ষী করা হয়। স্বাক্ষী হওয়ার কারনে আমাদের উপর এই সন্ত্রাসী চক্রের আক্রোশ বেড়ে যায়। তারা আমাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের ফন্ধি আঁটে। গত ১৩ জুলাই সন্ত্রাসী চক্র ভয় দেখিয়ে ১৫/২০জন মানুষ নিয়ে একটি মানববন্ধনের আয়োজন করে। মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারীদের অন্য কথা বলে ধোঁকা দিয়ে এনে মানববন্ধনের নামে জড়ো করা হয়। এই কর্মকান্ড এলাকার সচেতন মানুষের কাছে হাস্যকর হিসেবে পরিগণিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে সন্ত্রাসীচক্রের কবল থেকে রক্ষা পেতে আইন শৃংখলাবাহিনী সহ সকল মহলের সহযোগিতা কমনা করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন এলাকার আব্দুল কাদির, ফজর আলী, ইয়াওর আলী, তৈমুছ আলী, আব্দুল মানিক, মনুফর আলী, মনসুর আলী, বারিক আলী, জালাল উদ্দিন, ইকবাল হোসেন, ইলিয়াছ উদ্দিন প্রমুখ।