গোয়াইনঘাটে আ.লীগ নেতার দেলোয়ারের উপর হামলা, আহত ৫, থানায় মামলা

সুরমা ভিউ।।  সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলা ২নং পশ্চিম জাফলং ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনের উপর সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। গত ১২ জুলাই রাত ৯টায় ইউনিয়নের আহারকান্দি বাজারের তার উপর হামলা চালায় গোয়াইনঘাটে মাসুম হত্যা মামলার (যার নং- গোয়াইনঘাট জিআর ১৫৪) আসামী দেলোয়ার হোসেন। তিনি উপলোর আমবাড়ি গ্রামের আহমদ আলীর পুত্র। হামলার ঘটনায় আ.লীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন সহ ৫ জন গুরুতর আহত হন। আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় আহত দেলোয়ার হোসেনের বড় ভাই কামাল আহমদ গোয়াইনঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার নং- ১১ (১৪.০৭.২০১৯ইং)।
মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, গত ১০ জুলাই বিকাল ৫টায় আহারকান্দি বাজারে তার ছোট ভাই আবুল হোসেনের সাথে মামলায় বর্ণিত আসামী আহমদ আলীর পুত্র আবুল হোসেনের কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনায় স্থানীয় মুরব্বিরা সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে মিমাংশা করে দেন। কিন্তু মামলার আসামী আবুল হোসেন এ ঘটনাকে বড় করে হামলার প্রস্তুতি নেয়। এর জের ধরে গত ১২ জুলাই মামলায় বর্ণিত আসামী আহমদ আলীর পুত্র দেলোয়ার হোসেন, স্বপন, আবুল হোসেনের পুত্র কিবরিয়া আহমদ, আহমদ আলীর পুত্র আবুল হোসেন, খোকন আহমদ, তাজুল ইসলাম ও আহমদ আলী সহ অজ্ঞাত ৫/৬ জন মিলে রাতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনের উপর হামলা চালায়। দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র দা, রামদা, চাইনিজ, কুড়াল, ধারালো দা, ছুলফি, কাঠের রুল, বাঁশের লাঠি, লোহার জিআই পাইপ দিয়ে হামলা চালায়। হামলায় আ.লীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন ছাড়াও আকাশ, কবির আহমদ, রুবেল, আলী হোসেন গুরুতর আহত হন। তাদের মাথায় মারাত্মক রামদার ছেদ, শরীরে বিভিন্ন অংশে দা, রামদা, কুড়ালের ছেদ পড়ে গুরুতর জখম হন। পরে দেলোয়ার হোসেনসহ আহতদের মৃত ভেবে হামলাকারীরা চলে যায়। তাৎক্ষণিক আশপাশের লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। আহতদের মধ্যে আকাশ গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় আছে। ডাক্তার বলেছে- তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। বাকী আহতরা ওই হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করেন।
এ ঘটনায় আহত দেলোয়ার হোসেন জানান- তিনি আজ বৃহস্পতিবার সেলাই কাটানোর জন্য ওসমানী হাসপাতালে আসতে চান। সকালে বাড়ি থেকে বাহির হলে মামলায় বর্ণিত আসামী আবুল হোসেন ও তার ছেলে কিবরিয়া সহ অজ্ঞাত কয়েকজন দেলোয়ার হোসেনকে প্রাণে হত্যা করার প্রকাশ্যে হুমকি দেয়। এসময় তারা বলেন- ‘তুই আওয়ামী লীগ করস, স্বৈরাচারী শেখ হাসিনার গোলামী করছ, তোকে শেষ করেই ফেলবো’। এ ঘটনায় দেলওয়ার হোসেন ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তারা সন্ত্রাসীদের হাত থেকে বাঁচতে সরকার ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন মহলের সহযোগিতা কামনা করেন।
এ ঘটনায় গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল জলিল বলেন, হামলার পর দিন আহমদ আলী নামে এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।